রবিবার, ০৯ মে ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ০৪ মে, ২০২১, ০৫:৪৫:৫০

নামের মিল থাকায় দেড় বছর কারাগারে, মুক্তি পেলেন হাছিনা

নামের মিল থাকায় দেড় বছর কারাগারে, মুক্তি পেলেন হাছিনা

ঢাকা : অপরাধীর তালিকায় নেই কোনো নাম। অতীতে অপরাধের সঙ্গেও ছিলো না কোনো সম্পৃক্ততা। তবুও খাটছেন জেল। অপরাধ একটাই, সাজাপ্রাপ্ত আসামির নামের প্রথম অংশ ও স্বামীর নামের একাংশের সঙ্গে মিল।

তবে অপরাধীর নামের সঙ্গে মিল থাকলেও বাবা-মায়ের নামের সঙ্গে রয়েছে অমিল। কিন্তু মূল আসামির জায়গায় প্রায় দেড় বছর ধরে সাজা খাটছেন কক্সবাজারের টেকনাফের বাসিন্দা হাছিনা বেগম।

এভাবে নামের অদল-বদলে সাজা খাটার বিষয়টি সম্প্রতি চট্টগ্রাম মহানগর অতিরিক্ত ৫ম আদালতের নজরে আনেন অ্যাডভোকেট গোলাম মাওলা মুরাদ। তিনি বলেন, মামলাটি মহানগর অতিরিক্ত ৫ম আদালতের কিন্তু মঙ্গলবারে ওই কোর্ট না থাকায় ৪র্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতে এটার শুনানি হয়েছে।

বিষয়টি আমলে নিয়ে দেড় বছর ধরে সাজা খাটা হাছিনা বেগম প্রকৃত আসামি কি’না তা খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছে ৪র্থ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালত। কারাগারের ছবিযুক্ত বালামে প্রকৃত আসামি হাছিনা আক্তার ও কয়েদি হাছিনা বেগম একই নন বলে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেছেন চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগার কর্তৃপক্ষ। মঙ্গলবার (৪ মে) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ৪র্থ আদালতের বিচারক শরীফুল আলম ভূঁঞার ভার্চুয়াল আদালতে এ প্রতিবেদন দাখিল করা হয়।

জানা যায়, মূল আসামি নাম হাছিনা আক্তার (২৬)। তার বাড়ি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার টেকনাফ পৌরসভার চৌধুরী পাড়ায়। ওই এলাকার ইসমাইল হাজি বাড়ির হামিদ হোসেনের স্ত্রী তিনি। অন্যদিকে নামের ‘আংশিক মিলে’ ফেঁসে যাওয়া হাছিনা বেগমের (৪০) বাড়িও একই এলাকার হোসেন বর বাড়ি। তিনি হামিদ হোসেনের স্ত্রী। তবে অপরাধীর নামের সঙ্গে মিল থাকলেও বাবা-মায়ের নামের সঙ্গে অমিল রয়েছে।

হাছিনা বেগমের আইনজীবী অ্যাডভোকেট গোলাম মাওলা মুরাদ সংবাদমাধ্যমকে জানান, প্রতিবেদনে ২০১৭ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি কারাগারে যাওয়া হাছিনা আক্তার ও বর্তমানে কারাগারে থাকা হাছিনা বেগম একই আসামি নন বলে আদালতে প্রতিবেদন দিয়েছে কারাগার কর্তৃপক্ষ। কারাগারে থাকা ছবিযুক্ত বালামের রেকর্ডপত্র উপস্থাপন করা হয়েছে।

কারাগারে থাকা হাছিনা বেগমের বাড়ি কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার পৌরসভার চৌধুরী পাড়ায়। তিনি হামিদ হোসেনের স্ত্রী। সাজাপ্রাপ্ত আসামি হাছিনা আক্তারও একই এলাকার ইসমাইল হাজি বাড়ির হামিদ হোসেনের স্ত্রী।

এই বিভাগের আরও খবর

আজকের প্রশ্ন

পুরো ঢাকায় ‘অঘোষিত কারফিউ’ চলছে। সরকার জনগণকে জিম্মি করে জনগণকে বাদ দিয়ে বিদেশি অতিথিদের নিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে ব্যস্ত। ফখরুলের এক মন্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?