বুধবার, ২৭ জানুয়ারী ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

রবিবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২০, ০৭:২৬:০১

খুসকির সমস্যা দূর করতে যত্ন নিন প্রাকৃতিক উপকরণ দিয়ে

খুসকির সমস্যা দূর করতে যত্ন নিন প্রাকৃতিক উপকরণ দিয়ে

লাইফস্টাইল ডেস্ক : সারা বিশ্বজুড়ে লক্ষ লক্ষ মানুষের চুলের সমস্যাগুলি অন্যতম হল ড্যান্ড্রফ বা খুসকি। বাজারচলতি বেশ কয়েকটি শ্যাম্পু ১৫ দিনের মধ্যে ড্যান্ড্রাফ অপসারণের অভিনব দাবি করে।

কিন্তু, এসব শ্যম্পু এমন সব রাসায়নিক দিয়ে তৈরি যা আপনার সুন্দর চুলের জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। আয়ুর্বেদে রয়েছে এমন কয়েকটি উপকরণ যা পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া ছাড়াই আপনার চুলের যত্ন নেয়, ড্যান্ড্রাফের হাত থেকেও রেহাই দেয়।

১. নিম

নিমপাতার পাতার একটি পেস্ট তৈরি করুন, একবাটি দইয়ে এই পেস্ট মিশিয়ে মাথায় লাগান। ১৫-২০ মিনিট রেখে দিয়ে ভালো করে ধুয়ে নিন। নিমের অ্যান্টিফাঙ্গাল উপাদান ড্যান্ড্রাফের সঙ্গে দারুণ ভাবে কাজ করে।

২. ডিমের সাদা অংশ ও লেবুর রস

একটি ছোট পাত্রে দু'টি ডিমের সাদা অংশ নিয়ে এক চামচ লেবুর রস মেশান। আধ ঘণ্টার জন্য চুলে লাগিয়ে রেখে দিন, তারপর নীম জাতীয় শ্যাম্পু দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। ডান্ড্রফ খুব শীঘ্রই অদৃশ্য হয়ে যাবে। ডিমের সাদা অংশ প্রোটিন সমৃদ্ধ, যা চুলের ভাল স্বাস্থ্যের জন্য অপরিহার্য।

৩. আমলা

ভিটামিন সি- সমৃদ্ধ আমলা খুসকি প্রতিরোধ করে। আমলা গুঁড়ো করে জল মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করুন। ৮ থেকে ১০টা তুলসী পাতা অল্প করে জল দিয়ে পেস্ট করে আমলার পেস্টের সাথে মেশান। হাত দিয়ে চুলের গোড়ায় লাগান পেস্টটি। প্রায় ৩০ মিনিট রেখে ঠান্ডা জলে শ্যাম্পু করে নিন।

৪. মেথি বা মেথি বীজ

মেথিদানা উচ্চ প্রোটিন এবং নিকোটিনিক অ্যাসিডে সমৃদ্ধ যা চুল পড়া এবং ড্যান্ড্রাফ প্রতিরোধে সহায়তা করে, তা ছাড়াও চুলের শুষ্কতা, চুল ওঠা এবং চুলের পাতলা হয়ে যাওয়ার সমস্যাও কমায় মেথি। রাতে তিন চামচ মেথি বীজ নিয়ে জলে ভিজিয়ে রাখুন। পরদিন সকালে ব্লেন্ডারের সাহায্যে গুঁড়িয়ে নিন ওই মেথি। এবার মেথির এই পেস্টে এক চামচ লেবুর রস মেশান। চুলের গোড়া থেকে ডগা পর্যন্ত এই পেস্ট প্রয়োগ করুন। ৩০ মিনিটের জন্য রেখে শ্যাম্পু করে নিন।

৫. আমলা, রিঠা ও শিকাকাই

আমলা, রিঠা এবং শিকাকাই ভিটামিন সি সমৃদ্ধ, যা আপনার চুল এবং মাথার জন্য আশ্চর্য উপকারে আসতে পারে। সংক্রমণজনিত জীবাণুগুলি অপসারণ করে আপনার চুলকে পরিষ্কার রাখতে রিঠা অত্যন্ত কার্যকরী। ৫-৬ টি রিঠা, শিকাকাইয়ের ৬-৭ টুকরো এবং কয়েকটা আমলা জলে ভিজিয়ে রেখে দিন। সকালে উঠে মিশ্রণটি ফুটিয়ে নিন এবং তারপর মিশ্রণটি ঠান্ডা করে নিন। ব্লেন্ডারের সাহায্যে মিশ্রণটি ভালো করে মিশিয়ে ছেঁকে নিন। শ্যাম্পু হিসাবে এই তরল মিশ্রণটি ব্যবহার করুন।

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?