বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

সোমবার, ২১ জুন, ২০২১, ০৫:৪৬:৪৩

সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আসছে ৪৪তম বিসিএসের সার্কুলার

 সেপ্টেম্বর-অক্টোবরে আসছে ৪৪তম বিসিএসের সার্কুলার

ঢাকা : করোনায় প্রায় ১৫ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে সব সরকারি চাকরির সার্কুলার। তবে করোনাকালেও বিশেষ দুটি বিসিএস ও ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের সার্কুলার প্রকাশ করে সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি)। প্রতিবছর একটি করে সাধারণ বিসিএসের সার্কুলার দেয় পিএসসি। সে হিসেবে ২০২১ সালের ৪৪তম বিসিএসের সার্কুলার দেওয়ার প্রস্তুতির কাজ চলছে জোরেশোরে। আগামী সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসে হতে পারে ৪৪তম সাধারণ বিসিএসের সার্কুলার।

সোমবার (২১ জুন) জনপ্রশাসন ও সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূত্র জানায়, বর্তমানে ৪০, ৪১ ও ৪২তম বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা শেষ। এগুলোর ভাইভা পরীক্ষা চলছে। আর ৪৩তম বিসিএসের আবেদন জমা নেওয়ার কাজ চলছে। করোনার কারণে জরুরি ভিত্তিতে ডাক্তার নিয়োগের জন্য ৩৯ ও ৪২তম বিশেষ বিসিএস দেয় পিএসসি।

জানতে চাইলে সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) চেয়ারম্যান মো. সোহরাব হোসাইন বলেন, প্রতি বছর একটি করে বিসিএস দেওয়ার টার্গেটে নিয়ে আমরা কাজ করছি। এবারও সেই টার্গেট আছে। এ নিয়ে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় কাজ করছে। তাদের শূন্য পদে চাহিদা পেলে আগামী সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসে ৪৪তম বিসিএসের সার্কুলার দেওয়া সম্ভব হবে। তবে সব কিছু নির্ভয় করছে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের চাহিদা পাঠানো ওপর।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের নব নিয়োগ শাখার কর্মকর্তারা বলছেন, গত ফেব্রুয়ারিতে সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগের কাছে প্রথম শ্রেণির শূন্য পদের চাহিদা চেয়ে চিঠি দেওয়া হয়। প্রায় সব মন্ত্রণালয় ও বিভাগ থেকে চাহিদা পাওয়া গেছে। কয়েকটি মন্ত্রণালয়ের চাহিদা পাওয়ার পর সবকটি একত্রিত করে সমপরিমাণ ক্যাডার নিয়োগ দিতে পিএসসিকে নির্দেশনা দেবে মন্ত্রণালয়।

নব নিয়োগ শাখার কর্মকর্তারা বলছেন, জুলাই মাসের মধ্যে শূন্য পদের চাহিদা পিএসসির কাছে পাঠানো সম্ভব হবে। এরপর পিএসসি সেগুলো প্রক্রিয়া করে সেপ্টেম্বর বা অক্টোবর মাসে সার্কুলার দিতে পারে। তবে এর আগে বিশেষ কোনো বিসিএস হওয়ার সম্ভাবনা নেই বলে জানান জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

করোনার কারণে চাকরিপ্রার্থীদের অনেকের চাকরিতে আবেদনের বয়স চলে যাচ্ছে। এটি বিবেচনা করে ৪৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ হতে পারে। এই বিসিএসে বয়সেও শিথিলতা আনা হতে পারে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, করোনা কারণে প্রায় ১৪ মাস ধরে বন্ধ রয়েছে সরকারি নিয়োগ প্রক্রিয়া। এ সময় চাকরিতে আবেদনের বয়স শেষ হয়ে যাওয়ায় চিন্তিত অনেক চাকরিপ্রার্থীরা। দীর্ঘদিন ধরেই চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর দাবি জানিয়ে আসছেন তারা। এই অবস্থায় চাকরিপ্রত্যাশীদের জন্য একটি সুখবর দিল জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি)।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও পিএসসি সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানিয়েছে, করোনায় সরকারি চাকরিতে অনেকেরই আবেদনের বয়স হারানোর বিষয়টি মাথায় রেখে ৪৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তিতে চাকরিপ্রার্থীদের বয়স বিবেচনায় রাখতে পারে সরকার।

বর্তমানে ৪৩তম সাধারণ বিসিএসের আবেদন চলছে। গত ৩০ নভেম্বর বিভিন্ন ক্যাডারে এক হাজার ৮১৪ জন কর্মকর্তা নিয়োগের জন্য ৪৩তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। গত ৩০ ডিসেম্বর থেকে আবেদন শুরু হয়, কয়েক দফা বাড়িয়ে আবেদনের তারিখ জুন মাসের ৩০ তারিখ পর্যন্ত করা হয়েছে। এ বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৯ অক্টোবর।

ডাক্তারদের জন্য ৪২তম বিশেষ বিসিএসের ভাইভা পরীক্ষা চলছে। এছাড়াও সাধারণ বিসিএস ৪১তম প্রিলিমিনারি পরীক্ষা গত ১৯ মার্চ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ পরীক্ষায় বিভিন্ন ক্যাডারের ২ হাজার ১৩৫ পদের বিপরীতে প্রায় পৌনে ৫ লাখ চাকরিপ্রত্যাশী পরীক্ষায় অংশ নেন। শিগগিরই এ পরীক্ষার ফল প্রকাশ করবে পিএসসি। এছাড়া ৪০তম সাধারণ বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষা চলমান রয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

পুরো ঢাকায় ‘অঘোষিত কারফিউ’ চলছে। সরকার জনগণকে জিম্মি করে জনগণকে বাদ দিয়ে বিদেশি অতিথিদের নিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে ব্যস্ত। ফখরুলের এক মন্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?