মঙ্গলবার, ২২ জুন ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

বুধবার, ০৯ জুন, ২০২১, ১২:১১:১৬

মিয়ানমারের পূর্বাঞ্চলে সংঘর্ষে ১ লাখ মানুষ গৃহহীন

মিয়ানমারের পূর্বাঞ্চলে সংঘর্ষে ১ লাখ মানুষ গৃহহীন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মিয়ানমারের পূর্বাঞ্চলে সামরিক বাহিনী ও বিদ্রোহী বিভিন্ন পক্ষের মধ্যে নতুন করে সংঘর্ষে প্রায় এক লাখ মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়েছে। মঙ্গলবার জাতিসংঘ এ কথা জানায়। খবরটি দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

জাতিসংঘের মিয়ানমার দপ্তর জানায়, দেশটির বেসামরিক বিভিন্ন এলাকায় নিরাপত্তা বাহিনীর সাম্প্রতিক বাছবিচারহীন হামলা ও ব্যাপক সংঘর্ষে প্রায় এক লাখ মানুষ তাদের ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে গেছে। মিয়ানমারের পূর্বাঞ্চলীয় থাই সীমান্তবর্তী কায়াহ রাজ্যে এ দমনপীড়ন চালানো হয়।

তারা আরও জানায়, সংঘর্ষে ক্ষতিগ্রস্ত এসব এলাকায় জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি, আশ্রয়কেন্দ্র ও স্বাস্থ্য সেবা প্রয়োজন। এ ছাড়া নিরাপত্তা বাহিনী এসব এলাকায় চলাফেরার ব্যাপারে বিধিনিষেধ আরোপ করায় অতি প্রয়োজনীয় সাহায্য সরবরাহ বিলম্বিত হচ্ছে।

কায়াহ রাজ্যের স্থানীয় বাসিন্দারা বিভিন্ন গ্রামে মোতায়েন করে রাখা কামান ব্যবহার করে গোলা বর্ষণ করার জন্য সামরিক বাহিনীকে দায়ী করে।

গত ফেব্রুয়ারিতে সামরিক জেনারেলদের হাতে অং সান সু চির সরকারের পতনের পর থেকে মিয়ানমারে বিশৃঙ্খলা লেগেই রয়েছে এবং দেশটির অর্থনীতি মুখ থুবড়ে পড়েছে।

২০২০ সালের নির্বাচনে ভোট জালিয়াতি করার জন্য সু চির সরকারকে অভিযুক্ত করা হয়।

দেশটির বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপক সংঘর্ষ হয়, বিশেষ করে শহরতলীগুলোতে নিরাপত্তা বাহিনীর হাতে কয়েকশ’ মানুষ প্রাণ হারায়। এসব এলাকায় স্থানীয় কিছু মানুষ ‘প্রতিরক্ষা বাহিনী’ গড়ে তুলেছে।

এ দিকে মিয়ানমার সেনাবাহিনী কয়েক দশক ধরে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলমানদের প্রতি নির্যাতন চালিয়ে আসছে। বর্তমানে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশের আশ্রয় শিবিরে রয়েছে।

আজকের প্রশ্ন

পুরো ঢাকায় ‘অঘোষিত কারফিউ’ চলছে। সরকার জনগণকে জিম্মি করে জনগণকে বাদ দিয়ে বিদেশি অতিথিদের নিয়ে স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে ব্যস্ত। ফখরুলের এক মন্তব্যের সঙ্গে আপনি কি একমত?