সোমবার, ০১ মার্চ ,২০২১

Bangla Version
  
SHARE

মঙ্গলবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১, ০১:৪৪:৩৮

ভ্যাকসিনে ‘দারুণভাবে’ কাজ হচ্ছে : জরিপ

ভ্যাকসিনে ‘দারুণভাবে’ কাজ হচ্ছে : জরিপ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন যে সত্যিই সংক্রমিতদের হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার মতো গুরুতর অসুস্থ হওয়া বিপুলভাবে কমিয়ে দিতে পারে তার প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে যুক্তরাজ্যের স্কটল্যান্ডে চালানো এক জরিপে। যাদের বয়স ৮০-এর বেশি তাদের মধ্যে হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা কমেছে ৮১ শতাংশ।

স্কটল্যান্ডের জনস্বাস্থ্য বিভাগের চালানো গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে, প্রথম ডোজ ভ্যাকসিন দেওয়ার ৪ সপ্তাহ পর করোনাভাইরাস সংক্রমিত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ‘চমকপ্রদভাবে’ কমে গেছে।

যারা ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাদের মধ্যে করোনাভাইরাস সংক্রমণজনিত গুরুতর অসুস্থতা ৮৫ শতাংশ কমে গেছে এবং অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের মধ্যে এই হার কমেছে ৯৪ শতাংশ।

ওই জরিপের প্রধান গবেষক অধ্যাপক আজিজ শেখ বলেন, ‘দুটি ভ্যাকসিনই দারুণভাবে কাজ করছে’ এবং তা ভবিষ্যতের ব্যাপারে আশাবাদী হওয়ার মতো।

করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচির ফলে জনগোষ্ঠীর ওপর এর কি প্রভাব পড়ছে- প্রথমবারের মতো তার প্রমাণ পাওয়া গেল স্কটল্যান্ডে চালানো এ জরিপে।

স্কটল্যান্ডে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১১ লাখ ৪০ হাজার লোককে কোভিডের ভ্যাকসিন দেয়া হয়। ভ্যাকসিন নেয়া এই লোকদের মধ্যে কতজন কোভিডে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন, তার সাথে তুলনা করে দেখা হয় যারা ভ্যাকসিন নেননি তাদের মধ্যে কতজন হাসপাতালে ভর্তি হলেন।

সব মিলিয়ে দেখা যায়, যারা ভ্যাকসিন নেওয়ার পর চার সপ্তাহ পার করেছেন তাদের মধ্যে মাত্র ৫৮ জন কোভিড আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। অন্যদিকে ভ্যাকসিন না নেয়া লোকদের মধ্যে থেকে ৮ হাজার লোক কোভিড সংক্রমণ নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

ওই জরিপের প্রধান গবেষক অধ্যাপক আজিজ শেখ বলেন, এই ফলাফল অত্যন্ত চমৎকার এবং দুটো ভ্যাকসিনই ‘দারুণভাবে’ কাজ করছে।

বিবিসির স্বাস্থ্য সংবাদদাতা লিসা সামার্স বলছেন, বাস্তব জগতে কোভিডের ভ্যাকসিন কেমন কাজ করছে তা জানার জন্য স্কটল্যান্ডের এ জরিপ ছিল বেশ সুবিধাজনক। কারণ এখানকার জনসংখ্যা কম ও পুরো জনগোষ্ঠীর উপাত্ত দ্রুতগতিতে পাওয়া সম্ভব।

লিসা সামার্স বলছেন, এ জরিপের সীমাবদ্ধতা হচ্ছে এখানে শুধু ভ্যাকসিন নেওয়ার পর ‘করোনাভাইরাসের সংক্রমণে গুরুতর অসুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা কতটা কমল’ সেটিই দেখা হয়েছে। ভ্যাকসিন নেওয়ার পরও আপনি ভাইরাসে সংক্রমিত হতে পারেন কিনা বা অন্যদের মধ্যে রোগ ছড়াতে পারেন কিনা- তা দেখা হয়নি।

একটা নির্দিষ্ট সময় পরে ভ্যাকসিন গ্রহণকারীদের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যাবে কিনা- তাও দেখা হয়নি এ জরিপে।

কিন্তু আসল কথাটা হলো, মাত্র এক ডোজ ভ্যাকসিন নেওয়ার পরই গ্রহণকারীদের করোনাভাইরাস সংক্রমণে ‘গুরুতর অসুস্থ হওয়ার’ সম্ভাবনা ৮৫ থেকে ৯৪ শতাংশ পর্যন্ত কমে যাচ্ছে এটি স্পষ্টভাবেই বেরিয়ে এসেছে এ জরিপে।

পৃথিবীর বহু দেশেই এখন করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন দেয়া শুরু হয়ে গেছে। এ পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে ইসরায়েল, সংযুক্ত আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য ও যুক্তরাষ্ট্রে।
খবর বিবিসি বাংলা

আজকের প্রশ্ন

বিএনপির নেতারা আইন না বুঝেই মন্তব্য করে আইনমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে আপনি কি একমত?